স্মার্ট ডিএনএস কি? এটি কি ভিপিএন থেকে বেটার? ভিপিএন Vs স্মার্ট ডিএনএস!

মনে হয় না আজকের দিনে আপনাকে ভিপিএন সম্পর্কে বুঝানোর প্রয়োজনীয়তা রয়েছে! কম্পিউটার ইউজার’রা তো অবশ্যই ভিপিএন ব্যবহার করেন, আজকের স্মার্টফোন ইউজার’রাও এই টার্মটির সাথে বেশ পরিচিত। এক কথায় বলতে পারেন, এটি এমন একটি সার্ভিস যেটা চালু করতে আপনার কম্পিউটার বা মোবাইলে বিশেষ অ্যাপ্লিকেশন ইন্সটল করতে হয়, তারপরে আপনার আসল আইপি অ্যাড্রেস‘কে হাইড কে ব্লক থাকা ওয়েবসাইট গুলো আন-ব্লক, আইএসপির কাছে ব্রাউজিং ডাটা বাইপাস, যেকোনো নেটওয়ার্কে সিকিউরিটি এবং প্রাইভেসি রক্ষা, সাথে আরো অনেক সুবিধা পেয়ে থাকেন। কিন্তু স্মার্ট ডিএনএস (Smart DNS) কি জিনিষ? — হতে পারে এই টার্মটি হয়তো আপনি প্রথম শুনছেন! এই আর্টিকেলে আমি এই টার্মটির উপরই বিস্তারিত বর্ণনা করতে চলেছি এবং অবশ্যই আপনাকে পরিষ্কার ধারণা প্রদান করতে সক্ষম হবো বলে আশা রাখছি।

ভিপিএন

চলুন একেবারে প্রথম থেকে বুঝতে ভিপিএন (ভার্চুয়াল প্রাইভেট নেটওয়ার্ক) আর স্মার্ট ডিএনএস’কে সাইডে রাখি আর নজর দেই আমাদের ইন্টারনেট কানেকশন কিভাবে কাজ করে। যখন আপনি ইন্টারনেটের মাধ্যমে কোন ওয়েবসাইট ভিজিট করার জন্য ঐ সাইটটির লিঙ্ক ব্রাউজারে প্রবেশ করান, প্রথমে ডোমেইন নেম থেকে আইপি অ্যাড্রেস খুঁজে বেড় করা হয়। আপনার ইন্টারনেট সার্ভিস প্রভাইডারের একটি ডিএনএস (ডোমেইন নেম সার্ভার) সার্ভার রয়েছে, যেখানে সকল ডোমেইন নেমের একটি ডাটাবেজ থাকে। অবশ্যই শুধু কোন নেম ব্যবহার করে কোন ওয়েব সার্ভার কানেক্ট করা সম্ভব নয়, অবশ্যই আইপি অ্যাড্রেস খুঁজে পেতে হবে তবেই ওয়েব সার্ভারের সাথে কানেক্ট হওয়া সম্ভব।

তো আপনার প্রথম রিকোয়েস্ট’টি ডিএনএস সার্ভারের কাছে যায় আইপি অ্যাড্রেস খুঁজে পাওয়ার জন্য। তারপরে আইপি অ্যাড্রেস পেয়ে গেলে আপনার রিকোয়েস্ট আপনার আইএসপির আইপি এবং ফায়ারওয়াল অতিক্রম করে তবেই ইন্টারনেট সার্ভারের কাছে গিয়ে পৌছায়। এখন যদি আপনার আইএসপি কোন সাইটের নেম বা আইপি অ্যাড্রেস ব্লক করে রাখে, সেক্ষেত্রে আপনার রিকোয়েস্ট ঐ ওয়েব সার্ভারের কাছে পৌঁছানর পূর্বেই আইএসপির ফায়ারওয়াল আপনার রিকোয়েস্টকে ফিল্টার করে ব্লক করে দেবে। এখন শুধু কিন্তু আইএসপিই সাইট ব্লক করে রাখে না, অনেক সময় ঐ ওয়েবসাইট’টিও আপনার লোকেশনকে ব্লক করে রাখে। যেমন আপনি যদি বাংলাদেশ থেকে নেটফ্লিক্স ভিজিট করেন ,সেক্ষেত্রে আপনাকে কখনোই পরিষেবা প্রদান করা হবে না, কেনোনা নেটফ্লিক্স সার্ভার আপনার জিও লোকেশন ব্লক করে রেখেছে।

এখন প্রশ্ন হচ্ছে, ভিপিএন কিভাবে যেকোনো সাইট আন-ব্লক করতে পারে? — পূর্বে কি হতো, আপনার কম্পিউটার থেকে ডাইরেক্ট রিকোয়েস্ট গিয়ে আইএসপি কম্পিউটার হয়ে তারপরে ওয়েব সার্ভারে পৌঁছাত। কিন্তু ভিপিএন ব্যবহার করলে, আপনার কম্পিউটার প্রথমে আইএসপির সাথে কানেক্ট হবে কিন্তু এরপরে ভিপিএন সার্ভারের কাছে সকল রিকোয়েস্ট যাবে, ভিপিএন সার্ভার হয়ে তারপরে সেটা ওয়েবসাইট সার্ভারের কাছে রিকোয়েস্ট পৌঁছাবে। আগে কি হতো, যে আইপি গুলো আইএসপি থেকে ব্লক ছিল সেগুলতে অ্যাক্সেস করা যেতো না, কিন্তু ভিপিএন ব্যবহার করার পরে যেকোনো আইপি অ্যাক্সেস করা যায়, কেনোনা ঐ আইপিতে রিকোয়েস্ট সরাসরি আইএসপির মাধ্যমে করায় হয় না! আপনার আইএসপি শুধু মাত্র ভিপিএন আইপির সাথে কানেক্টেড থাকবে, কিন্তু এক প্রাইভেট সুরঙ্গ দিয়ে আপনি আর ভিপিএন সার্ভারের মধ্যে কোন ফাইল বা কোন সাইট অ্যাক্সেস করবেন সেটা আইএসপি বুঝতেই পারবেনা। কেনোনা সকল ডাটা গুলো এনক্রিপশন করে ট্র্যান্সমিট করা হয়, ফলে আপনার আইএসপি শুধু দেখতে পাবে আপনি ভিপিএন এর সাথে কানেক্টেড রয়েছেন, কিন্তু এর ভেতর দিয়ে আপনি কি করছেন সেটা পড়া সম্ভব নয়। আবার ওয়েব সার্ভারের কাছেও ভিপিএন আইপি থেকে রিকোয়েস্ট যায়, ভিপিএন সার্ভার পৃথিবীর যেকোনো দেশে অবস্থিত থাকতে পারে, আপনি যদি ইউএসএ সার্ভার ব্যবহার করেন, সেক্ষেত্রে বাংলাদেশের যেকোনো ব্লক থাকা সাইট আন-ব্লক হয়ে যাবে। ওয়েব সার্ভার নিজেও আপনার সঠিক জিও লোকেশন পাবে না।

চলুন আরো ব্যাস্তব উদাহরণ দেওয়ার মাধ্যমে ভিপিএন টার্মটিকে খোলাসা করার চেষ্টা করি। মনে করুণ, আপনার বাসা থেকে আপনাকে বাজারে যাওয়া নিষেধ (যেমন আইএসপি যেকোনো সাইট ব্লক করে রাখে), তো অবশ্যই বাসা থেকে বেরনোর আগে আপনার অবিভাবক আপনাকে দেখে ফেলবে এবং আপনাকে আটকিয়ে দেবে। কিন্তু আপনার ভাইয়ের বাসা থেকে বাজারে যাওয়ার অনুমতি রয়েছে, তো আপনি যদি ভাইকে বাজার থেকে কিছু জিনিষ আনতে বলেন সে সহজেই বাজারে গিয়ে আপনাকে এনে দেবে। যদি সে কৌশলে সিক্রেট প্যাকেটে (যেমন ভিপিএন এনক্রিপশন ব্যবহার করে ডাটা ট্র্যান্সমিট করে) আপনাকে জিনিষটি এনে দেয়, তাহলে আপনার অবিভাবকও বুঝতে পারবে না, আপনাকে কি এনে দিলো! আবার মনে করুণ, আপনার বাসা থেকে তো বেড় হওয়া যাবে, কিন্তু মার্কেটের নির্দিষ্ট দোকানদার আপনাকে দোকানে যেতে নিষেধ করেছে (যেমন- যেকোনো ওয়েবসাইট আপনার লোকেশন বা আইপি ব্লক করে রেখেছে) , কিন্তু আপনার ঐ দোকান থেকেই জিনিষ দরকার, তাহলে কি করবেন? এখানেও আপনার ভাইকে পাঠিয়ে দিতে পারেন, অবশ্যই আপনার ভাইকে দোকানদার কিছু বলবে না, এবং আপনি ঐ জিনিষটি পেয়ে যাবেন। তো এখানে ভিপিএন ঠিক আপনার ভাইয়ের মতোই কাজ করে।

স্মার্ট ডিএনএস

ওকে, বিশাল বড় প্যাচাল পেড়ে নিয়েছি, এখন চলুন জেনে নেওয়া যাক স্মার্ট ডিএনএস কি জিনিষ! আগেই উল্লেখ্য করেছি, প্রথমে আপনাকে অবশ্যই ডিএনএস সার্ভারের সাথে কানেক্টেড হতে হবে যেখানে ডোমেইনের পেছনের আইপি অ্যাড্রেসটি জানতে পারবেন। ডিফল্টভাবে আপনি সাধারণত আইএসপির ডিএনএস সার্ভারের সাথে কানেক্টেড থাকেন। স্মার্ট ডিএনএস মূলত এটিও একটি ডিএনএস সার্ভিস যেটা ৩য় পক্ষ কোম্পানিরা মার্কেটিং টার্ম হিসেবে “স্মার্ট ডিএনএস” কথাটি ব্যবহার করে। এখানে আপনি আপনার আইএসপি’র ডিএনএস সার্ভার ব্যবহার না করে যেকোনো আলাদা ডিএনএস প্রভাইডারের ডিএনএস ব্যবহার করেন। যেখানে আপনার আইপি অ্যাড্রেস পরিবর্তন হবে না, যেমনটা ভিপিএন ব্যবহার করলে আপনার আইএসপি আইপি শো না করে ভিপিএন সার্ভার আইপি শো করে, কিন্তু এখানে আপনার আইপি ই ব্যবহৃত হবে। আপনি যেকোনো সাইট নর্মাল ভাবেই ব্যবহার করতে পারবেন। কিন্তু যে বিশেষ সাইট গুলো জিও ব্লক করা থাকে সেগুলো শুধু প্রক্সি সার্ভার ব্যবহার করে ওপেন হবে। এতে আপনার জিও ব্লক সরে যাবে।

যদি আপনি নেটফ্লিক্স বাইপাস করার জন্য স্মার্ট ডিএনএস ব্যবহার করেন, সেক্ষেত্রে এটা ভিপিএন থেকে বেশি উপযোগী হবে। কেনোনা ভিপিএন এ এনক্রিপশন ম্যাথড, সার্ভার লোকেশন, সার্ভার ব্যান্ডউইথ স্পীডের উপর নির্ভর করে আপনার আসল ইন্টারনেট স্পীড কমে যায়। কিন্তু স্মার্ট ডিএনএস এ কোন আইপি পরিবর্তন হবে না, সাথে কোন এনক্রিপশনও নেই তাই আপনার আসল ইন্টারনেট স্পীডই বজায় থাকবে।

ভিপিএন Vs স্মার্ট ডিএনএস

যদি আপনি ভিপিএন ব্যবহার করেন সেক্ষেত্রে অবশ্যই আপনার আইপি অ্যাড্রেস পরিবর্তন হয়ে যাবে। সাথে আপনার সকল ইন্টারনেট ডাটা এনক্রিপশন করানোর মাধ্যমে এক সিক্রেট ট্যানেল দিয়ে প্রবাহিত করানো হবে। এখানে আপনার প্রাইভেসি, সিকিউরিটি সবকিছুর বিশেষ মর্যাদা পাবে। কিন্তু ভিডিও স্ট্রিমিং করার সময় ভিপিএন একটু স্লো ব্যান্ডউইথ স্পীড প্রদান করে, যদি আপনার মেইন ইন্টারনেট স্পীড অনেক বেশি হয়, সেক্ষেত্রে সেটা ব্যাপার নয়, কিন্তু মাত্র কয়েক মেগাবিট/সেকেন্ড ইন্টারনেট কানেকশনে এটি বিরাট ব্যাপার। তো যদি আপনার সিকিউরিটি এবং প্রাইভেসি প্রধান ফ্যাক্টর হয়ে থাকে, অবশ্যই ভিপিএন আপনার জন্য বেস্ট সলিউসন হবে।

অপরদিকে স্মার্ট ডিএনএস আপনার আইপি অ্যাড্রেস পরিবর্তন করবে না, এমনকি আপনার ইন্টারনেট প্যাকেট গুলোকে এনক্রিপটেডও করবে না। তাই আপনার সিকিউরিটি আর প্রাইভেসি এখানে প্রশ্নের মুখে পড়বে। কিন্তু আপনি ইন্টারনেটের ফুল স্পীড পাবেন। ভিডিও স্ট্রিমিং করার সময় আপনার মেইন ইন্টারনেট স্পীড ভালো থাকলে, স্মার্ট ডিএনএস ব্যবহার করার পরেও সেখানে কোন পরিবর্তন আসবে না। তবে স্মার্ট ডিএনএস বেশিরভাগ ক্ষেত্রে পেইড সার্ভিস হয়ে থাকে, যেখানে ভিপিএন ফ্রী’তেও ব্যবহার করা যায়, কিন্তু ভিপিএন থেকে স্মার্ট-ডিএনএসের জন্য আপনাকে কম পে করতে হবে!

নিচের চার্টটি দেখে নিলে স্মার্ট ডিএনএস এবং ভিপিএন এর মধ্যের পার্থক্য় বুঝতে সুবিধা হবে;

ভিপিএনস্মার্ট ডিএনএস
আইপি অ্যাড্রেস পরিবর্তনহ্যাঁনা
এনক্রিপশনহ্যাঁনা
ইন্টারনেট স্পীড স্লোএকটু স্লো হতে পারে!স্পীড ঠিক থাকবে!
দামফ্রী রয়েছে, কিন্তু পেইডের দাম একটু বেশি!প্রায় সকল সার্ভিসই পেইড, কিন্তু ভিপিএন থেকে সস্তা!
সেটআপ প্রসেসযেকোনো প্ল্যাটফর্মেই অনেক সহজযেকোনো প্ল্যাটফর্মেই অনেক সহজ

আশা করছি এই আর্টিকেল থেকে ভিপিএন এবং স্মার্ট ডিএনএস সম্পর্কে ভালো ধারণা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছেন এবং অবশ্যই এখন সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন, আপনার কোন সময়ে কোন কাজের জন্য কোনটি বেস্ট হবে। অবশ্যই এই সার্ভিস গুলো নেওয়ার সময় কোম্পানি রেটিং দেখে নেবেন, সাথে সার্ভার লোকেশনও গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট। যেকোনো প্রশ্ন বা মতামত জানাতে অবশ্যই নিচে কমেন্ট করুণ!

ইমেজ ক্রেডিট; By Artem Oleshko Via Shutterstock

label, , ,

About the author

প্রযুক্তির জটিল টার্মগুলো কি আপনাকে বিভ্রান্ত করছে? কিছুতেই কি আপনার মস্তিষ্কে পাল্লা পড়ছে না? তাহলে বন্ধু, আপনি এবার সঠিক জায়গায় এসেছেন—কেনোনা এখানে আমি প্রযুক্তির সকল জটিল বিষয় গুলো ভাঙ্গিয়ে সহজ পানির মতো উপস্থাপন করার চেষ্টা করি, যাতে সকলে সহজেই সকল টেক টার্ম গুলো বুঝতে পারে।

5 Comments

  1. Salam Ratul October 18, 2017 Reply
  2. Anirban October 18, 2017 Reply
  3. আসিফ ইকবাল October 18, 2017 Reply
  4. আশফাক October 18, 2017 Reply

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *