গুগল ক্রোম ব্রাউজারের ১৯ টি লুকায়িত ফিচার | পাওয়ার ইউজাদের জন্য

বন্ধুরা আজ ভাবলাম নতুন কিছু নিয়ে লেখা যাক। মানে অজানা কিছু টিপস বা ট্রিক্স নিয়ে। তো চলুন জেনে নেওয়া যাক আপনার পছন্দের ব্রাউজার গুগল ক্রোম এর ১৯ টি লুকায়িত ফিচার সম্পর্কে। গুগল ক্রোম নিয়ে আমার নতুন কিছু বলার নাই। এক কথায় ফ্যান্টাস্টিক একটা ব্রাউজার। Starcounter এর গণনা অনুসারে সারা পৃথিবীতে প্রায় ৫৬% ব্যবহারকারী ডেস্কটপে গুগল ক্রোম ব্যবহার করেন। তাছাড়া ব্রাউজারটি স্মার্টফোনেও বেশ জনপ্রিয়। গুগল ক্রোমের এতটা সফলতার জন্য “ক্রোম” এই নামটি একটি ব্র্যান্ডে পরিণীত হয়েছে। এবং এর অনেক গুলো প্রোডাক্ট ও আছে, ক্রোম কাস্ট এবং ক্রোম বুক এদের মধ্যে অন্যতম। গুগল ক্রোমের প্রধান কোড গুলো গুগল ওপেন সোর্স হিসেবে উন্মুক্ত করেছে, যার নাম “ক্রোমিয়াম”। যাই হোক, এবার চলে যায় মূল পোস্টে।

আরো কিছু পোস্ট

১। অনেক গুলো ট্যাবকে একসাথে টেনে নতুন উইন্ডো খুলুন

আমারা সকলেই জানি যে কোন ট্যাব কে ড্রাগ করে ড্রপ করলে তা নতুন উইন্ডো নিয়ে ওপেন হয়। কিন্তু আপনি জানেন কি, যে এক সাথে অনেক গুলো ট্যাব ড্রাগ এবং ড্রপ করে একাধিক ট্যাব সম্পূর্ণ একটি উইন্ডো খোলা যায়? আপনার কীবোর্ড থেকে Ctrl কী চেপে যে ট্যাব গুলো দিয়ে নতুন উইন্ডো খুলতে চান, তার উপর ক্লিক করুন এই বার ড্রাগ করে যেকোনো কোথাও ড্রপ করে দিন।  দেখবেন আপনার ক্লিক করা সব কয়টা ট্যাব দিয়ে নতুন একটা উইন্ডো খুলে গেছে। আরো পরিষ্কার ভাবে বুঝতে নিচের ছবি গুলো দেখুন।

গুগল ক্রোম
বাম থেকে শুরু করে তিনটি ট্যাবকে CTRL ধরে ড্রাগ ও ড্রপ করবো
ক্রোম ফিচার
দেখুন ট্যাব তিনটি একটি নতুন উইন্ডো নিয়ে খুলেছে

২। আপনার গুগল ক্রোম একটি ক্যালকুলেটর

হাঁ বন্ধুরা, আপনার ক্রোম সাধারন অংক গুলো নিজেই করতে পারে। তাও আবার সরাসরি গুগল ডট কমে এ প্রবেশ করে না করে। আপনার ক্রোমের অমনিবক্সে গিয়ে যেকোনো সাধারন অংক টাইপ করুন (এন্টার চাপার প্রয়োজন নেই) দেখবেন স্বয়ংক্রিয়ভাবে ক্রোম আপনার অঙ্কটি কষে দেবে। তবে এই ফিচারটি উপভোগ করতে আপনার ব্রাউজারে ডিফল্ট সার্চ ইঞ্জিন হিসেবে গুগল নির্বাচিত থাকতে হবে। ইয়াহু, বিং ইত্যাদি সার্চ ইঞ্জিন নির্বাচন করে রাখলে কিন্তু ফিচারটি উপভোগ করতে পারবেন না। আরেকটি কথা এই ফিচারটি কিন্তু ইনকগনিটো উইন্ডো বা প্রাইভেট ব্রাউজিং করার সময় কাজ করবে না।

গুগল ক্রোম ক্যালকুলেটর
আপনার ক্রোম অমনিবক্স একটি ক্যালকুলেটর

৩। আপনার ক্রোম অমনিবক্স একটি ইউনিট কনভার্টার

আপনার ক্রোম অমনিবক্স ক্যালকুলেটর হওয়ার পাশাপাশি একটি ভালমানের ইউনিট কনভার্টার ও বটে। যে ইউনিটটি আপনি কনভার্ট করতে চান সেটি অমনিবক্সে গিয়ে লিখুন আমার মতো করে, ব্যাস আপনার ইউনিটটি কনভার্ট হয়ে যাবে। এখানেও একই রুলস, ফিচারটি উপভোগ করতে আপনার ব্রাউজারে ডিফল্ট সার্চ ইঞ্জিন হিসেবে গুগল নির্বাচিত থাকতে হবে। ইয়াহু, বিং ইত্যাদি সার্চ ইঞ্জিন নির্বাচন করে রাখলে কিন্তু ফিচারটি উপভোগ করতে পারবেন না। আর অবশ্যই এই ফিচারটি ইনকগনিটো উইন্ডো বা প্রাইভেট ব্রাউজিং করার সময় কাজ করবে না।

ক্রোম ইউনিট কনভার্টার
ক্রোম অমনিবক্স একটি ইউনিট কনভার্টার

৪। আপনার ক্রোম একটি সাধারন ইমেজ ব্রাউজার

গুগল ক্রোম দিয়ে আপনি Jpg, Png, Gif ইত্যাদি ফটো Browse করতে পারবেন। আপনার ফাইল এক্সপ্লোরার থেকে যেকোনো ইমেজ ড্রাগ করে ক্রোমে ড্রপ করুন। ব্যাস, খুব সহজ।

ক্রোম ইমেজ ব্রাউজার
আপনার ক্রোম একটি ইমেজ ব্রাউজার

৫। ড্রপ করে সার্চ করুন

যেকোনো ওয়েব পেজ থেকে কোন টেক্সট হাইলাইট করে সেটি ড্রাগ করে অমনিবক্সে ড্রপ করে দিলেই সেটি দ্বারা সার্চ হয়ে যাবে আপনার সেট করা সার্চ ইঞ্জিনে। এটা টেক্সট কপি করে পেস্ট করে সার্চ করার মতোই। কিন্তু ড্রাগ ও ড্রপ করে ২এক্স বেশি তাড়াতাড়ি সার্চ করতে পারবেন।

ক্রোম

ক্রোম সার্চ

৬। ইউআরএল ড্রপ করে সাইট ভিসিট করুন

এটি অনেক সুন্দর এক ফিচার। আপনার যে লিঙ্কটি ওপেন করতে চান, সেই লিঙ্কটি ড্রাগ করে অমনিবক্সে এ ড্রপ করলেই হবে। আপনি চাইলে লিঙ্কটি এডিট করতে পারবেন। কোন লিঙ্ককে যদি নিউ ট্যাব নিয়ে খুলতে চান তাহলে লিঙ্কটি ড্রাগ করে নিউ ট্যাব আইকন এর পাশে ড্রপ করে দিলেই আপনার লিঙ্ক নিউ ট্যাব নিয়ে খুলবে।

ক্রোম ফিচার
লিঙ্কটি নিউ ট্যাব আইকনের কাছে ড্রপ করা হয়েছে
ক্রোম ফিচার
লিঙ্কটি ড্রপ করার ফলে নতুন ট্যাবে লিঙ্কটি খুলে গেলো

৭। কীবোর্ড কম্যান্ড ব্যবহার করে এক ট্যাব থেকে আরেক ট্যাব সুইচ করুন

এটি আমার অনেক পছন্দের একটি ফিচার। আপনি যদি দ্রুত কাজ করতে পছন্দ করেন তবে, আপনারও এই ফিচারটি ভালো লাগার কথা। আপনার কীবোর্ডে Ctrl কী চেপে ধরে ক্রমান্বয়ে ১,২,৩,৪,৫,৬ চাপতে থাকুন দেখবেন ক্রমিক ভাবে আপনার ট্যাব গুলো সুইচ হচ্ছে। মজার ব্যাপার না?

কীবোর্ড কম্যান্ড ব্যবহার করে এক ট্যাব থেকে আরেক ট্যাব সুইচ করুন
কীবোর্ড কম্যান্ড ব্যবহার করে সহজে ট্যাব সুইচিং

৮। কীবোর্ড কম্যান্ড ব্যবহার করে ওয়েব পেজ ন্যাভিগেট করুন

আপনি শুধু স্পেস কী ব্যবহার করে যেকোনো ওয়েবপেজকে উপরে বা নিচে ন্যাভিগেট করতে পারেন। স্পেস কী চাপলে পেজ নিচের দিকে এবং স্পেস+শিফট কী চাপলে পেজ উপরে ন্যাভিগেট হবে।

গুগল ক্রোম ব্রাউজার
কী কম্যান্ড ব্যাবহারে সহজ ন্যাভিগেশন

৯। পছন্দের ওয়েবসাইট গুলো স্টার্টে যোগ করুন

আপনি যদি আমার মতো হোন, যে পিসিতে ইন্টারনেট যোগ করার পর একই সাইট গুলোতে বারবার ভিসিট করতে হয় তাহলে একই ঠিকানা বারবার কেন টাইপ করবেন? ক্রোমকে কাজটা নিজেই করতে দিন না। গুগল ক্রোম অমনিবক্সে গিয়ে লিখুন “chrome://settings/startup” তার পর ENTER চাপলেই নিচের মত পপআপ দেখতে পারবেন। তারপর ক্রোম ওপেন করেই যে ওয়েবসাইট গুলোতে আপনাকে যেতে হয় তা টাইপ কে অ্যাড করে দিন! ব্যাস, এইবার যখন আপনি আপনার ক্রোম ওপেন করবেন আপনার ক্রোম আপনাকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে আপনার পছন্দের ওয়েবসাইট গুলোতে নিয়ে যাবে।

গুগল
সহজে স্টার্ট ওয়েবসাইট যুক্ত করুন

১০। ডাউনলোড করা ফাইল গুলো ডেস্কটপে সেভ করুন

আগেই বলে রাখছি যে এই টিপসটা সবার কাজের না। কিন্তু আপনি যদি আমার মতো হয়ে থাকেন তবে এটি আপনার কাজে লাগবে। আমি আমার ডাউনলোড করা ফাইল গুলো খুব সহজেই অ্যাক্সেস করতে চাই। আর দ্রুত অ্যাক্সেস করার জন্য আমি ডেক্সটপকেই সর্বউত্তম মনে করি। গুগল ক্রোম অমনিবক্সে গিয়ে টাইপ করুন “chrome://settings” তারপর ENTER চাপুন। এইবার নিচে স্ক্রল করে Advanced Settings Link এ ক্লিক করুন। এইবার ডাউনলোড লোকেশান থেকে ডেক্সটপ কে দেখিয়ে দিন। ব্যাস, আপনার কাজ আরো একধাপ ফাস্ট হয়ে গেলো।

গুগল ক্রোম ইন্টারনেট ব্রাউজার
ডাউনলোড করা ফাইল গুলো ডেস্কটপে সেভ করুন

১১। ভুল করে ক্লোজ করা ট্যাব আবার ফিরিয়ে নিয়ে আসুন

আমার মতো হয়তো আপনারা অনেকেই দ্রুত কাজ করাটাকে বেশি পছন্দ করেন। কিন্তু অনেক সময় দ্রুত কাজ করতে গিয়ে অনেক দ্রুত ভুল করে ফেলি। কাজের চাপে কোন সময় ভুল করে এমন ট্যাব ক্লোজ করে ফেলি যা মাথা আছড়ালেও আর ফেরত আসবে না। আমার তো একদিন ১ ঘণ্টার কাজই পুরা মাটি হয়ে গিয়েছিল। যাই হোক, গুগল ক্রোম ব্যবহারকারীরা আপনারা কোন চিন্তা নেবেন না এই বিষয়ে। কারন ক্রোম আপনার এসকল ছোটখাট ভুল সহজেই মাফ করে দেবে। তাই ভুল করে কাজের ট্যাব বা যেকোনো ট্যাব ক্লোজ করে ফেললে জাস্ট কীবোর্ডে কম্যান্ড চাপুন Control+Shift+T। বুম… এবার দেখুন ম্যাজিক।

ক্রোম টিপস
ভুল করে ক্লোজ করা ট্যাব আবার ফিরিয়ে নিয়ে আসুন

১২। সহজে পেজ জুম করুন

হাঁ, এটা কিন্তু ভীষণ কাজের একটা শর্টকাট। আপনি চাইলে ওয়েবপেজকে ইচ্ছা মত জুম-ইন এবং জুম-আউট করতে পারবেন। আর্টিকেল পরার সময় কিন্তু এইটা বেশ কাজে লাগে। অনেক সময় অনেক সাইটের ফন্ট অনেক ছোট হয় বা কম্পিউটার স্ক্রিন থেকে একটু দূরে সরে কিছু পড়তে চাইলে এই ফিচারটি আপনার কাজ সহজ করে দেবে। কীবোর্ড থেকে Ctrl কী চেপে মাউস এর চাকা উপরে নিচে ঘুরানোর মাধ্যমে আপনি আপনার ওয়েবপেজকে জুম-ইন এবং জুম-আউট করতে পারবেন। চিত্রে দেখানো ম্যাগনিফাইং আইকন দিয়েও আপনি এইটা নিয়ন্ত্রন করতে পারবেন।

গুগল ক্রোম টিপস
সহজে পেজ জুম

১৩। সহজ কম্যান্ড ব্যবহার করে সকল হিস্ট্রি মুছে ফেলুন

সকল প্রকারের হিস্ট্রি মুছে ফেলা এখন আরো বেশি সহজ কাজ। আপনি চাইলে এখন খুব দ্রুত আপনার সব ব্রাউজিং হিস্ট্রি মুছে ফেলতে পারেন। আগের ইউআরএল গুলো, ক্যাশ ইমেজ, সেভ থাকা পাসওয়ার্ড, কুকিজ ইত্যাদি মুছে ফেলা এখন ১ সেকেন্ডের ব্যাপার। আপনার কীবোর্ড এ Ctrl+Shift+Delete কম্যান্ড দিন। এখন “Clear browsing data” নামক নতুন এক উইন্ডো ওপেন হবে। এখান থেকে যা মুছে ফেলার ইচ্ছা জাস্ট মুছে ফেলুন।

সহজ কম্যান্ড ব্যবহার করে সকল হিস্ট্রি মুছে ফেলুন
সহজ কম্যান্ড ব্যবহার করে সকল হিস্ট্রি মুছে ফেলুন

১৪। ক্রোম অমনিবক্সেই লুকিয়ে রয়েছে অনেক ফিচার

অমনিবক্সের ডান পাশে থাকা ছোটো স্টার আইকনটিতে ক্লিক করে বর্তমান ট্যাবে থাকা ওয়েবসাইটকে বুকমার্ক করা যায়। এবং তা favorites লিস্ট থেকে খুজে পাওয়া যায়। তাছাড়া অমনিবক্সের বাম পাশে থাকা পেজ আইকনটি ক্লিক করলে ট্যাবে থাকা ঐ ওয়েবসাইটটির সম্পর্কে অনেক লুকানো তথ্য খুজে পেয়ে যাবেন। যেমন- উক্ত সাইটটি আপনি কবে ভিসিট করেছিলেন, সাইটটির কানেকশান ইনক্রিপ্টেড কিনা, সাইটটি ভেরিফাইড কিনা ইত্যাদি।

ক্রোম অমনিবক্স
অমনিবক্সের লুকায়িত ফিচার

১৫। ড্রাগ করে যেকোনো লিঙ্ক ডেস্কটপে বুকমার্ক হিসেবে সেভ করুন

পছন্দের ওয়েবসাইট লিঙ্ক ডেস্কটপে বুকমার্ক করে রাখতে চাচ্ছেন? তো এটা আবার কি এমন কঠিন কাজ? একদম পানির মতো সহজ কাজ। অমনিবক্স থেকে লিঙ্কটি হাইলাইট করুন তারপর লিঙ্কটি টেনে নিয়ে এসে সরাসরি ডেক্সটপের উপর ছেড়ে নিন। ব্যাস কাজ শেষ।

ক্রোম

১৬। যেকোনো কিছু ট্রান্সলেট করুন

চরম একটি ফিচার এটা। আপনি চাইলে যেকোন ওয়েবসাইটকে যেকোনো ভাষায় ট্রান্সলেট করতে পারেন। শুধু তাই না, ওয়েবসাইটে থাকা যে কোন ওয়ার্ড বা বাক্য কেউ ট্রান্সলেট করতে পারবেন। আর সবচেয়ে ভালো কথাটি হলো এই কাজ গুলো হবে আপনার গুগল ক্রোম এর সাথে মাত্র দুই ক্লিকে। এখনই অফিসিয়াল Google Translate extension টি এড করে নিন আপনার ক্রোমের সাথে। তারপর ওয়েবপেজ এর যেকোনো ওয়ার্ড বা সেন্টেন্স কে হাইলাইট করুন, এবার ক্লিক করুন চিত্রে দেখানো আইকনে। দেখুন চেষ্টা করে এক্ষুনি।

গুগল এক্সটেনশন
যেকোনো কিছু ট্রান্সলেট করুন

১৭। গুগল ক্রোমকে রাঙ্গিয়ে নিন থিম ব্যবহার করে

কি? ক্রোমের একই মুখ দেখতে দেখতে অস্থির? এবার একটু নতুন রঙ দিন আপনার পছন্দের ব্রাউজারটিকে। আপনার জন্য আছে অনেক ফ্রী থিম। এইবার আপনার ক্রোমকে ইচ্ছা মত রাঙ্গিয়ে নিন। আপনি চাইলে আরেকটু রঙ দিতে পারেন আপনার ক্রোমকে, “chrome://apps” এই লিঙ্ক এ যান। দেখুন ম্যাজিক, এইটা গুগল অ্যাপস পেজ। এইটাকে হোম হিসেবে লাগাতে পারেন।

গুগল ক্রোমকে রাঙ্গিয়ে নিন থিম ব্যবহার করে
গুগল ক্রোমকে রাঙ্গিয়ে নিন থিম ব্যবহার করে

১৮। আপনার বাচ্চার জন্য আলাদা প্রোফাইল তৈরি করে রাখুন

আপনার সন্তানকে সেফ ইন্টারনেট প্রদান করতে তার জন্য একটি প্রোফাইল তৈরি করে রাখতে পারেন। গুগল ক্রোম আপনাকে আপনার বাচ্চার জন্য আলাদা প্রোফাইল তৈরি করার সুযোগ করে দিয়েছে। যেটা আপনি পর্যবেক্ষণ এবং নিয়ন্ত্রন করতে পারবেন। সর্বপ্রথম, আপনাকে একটি নতুন প্রোফাইল তৈরি করতে হবে Settings > People > Add person. এইখানে গিয়ে। মনে রাখবেন “Control and view the websites this person visits from your log-on account” এই বক্স টি যেন চেক করা থাকে, প্রোফাইল তৈরি করার সময়।  প্রোফাইল তৈরি করা হয়ে গেলে ক্রোম মানেজ এ যান। এখানে দেখতে পাবেন যে supervised user’s page তৈরি হয়েছে। Safe Search অন করে রাখুন, এবং আপনি চাইলে যে কোন ওয়েবসাইট কে ব্লক করে রাখতে পারেন এখান থেকে। আপনি একাধিক বাচ্চাদের জন্য একাধিক প্রোফাইল তৈরি করতে পারেন।

ক্রোম প্রোফাইল
আপনার বাচ্চার জন্য আলাদা প্রোফাইল তৈরি করে রাখুন

১৯। ক্রোমের কিছু গোপন পেজ

হাঁ, ক্রোমে কিছু গোপন পেজ রয়েছে। আপনার অমনিবক্সে গিয়ে লিখুন “Chrome URL” (সাধারণত chrome:// দিয়ে শুরু হয় এই টাইপের লিঙ্ক)। ব্যাস আপনার লুকান পেজ চলে আসবে। এর ভেতর কিছু লিঙ্ক আপনি সেটিংস্‌ থেকে পাবেন, আর কিছু লিঙ্ক শুধু মাত্র সরাসরি লিঙ্কই দিতে হবে। আরেকটু সহজ করে দিলাম আপনার ক্রোম অমনিবক্সে গিয়ে লিখুন “chrome://chrome-urls”। এখন ব্রাউজ করুন হিডেন লিঙ্কস।

গুগল ক্রোম গোপন টিপস
ক্রোমের গোপন পেজ

ইন্টারনেট নিয়ে কিছু পোস্ট

শেষ কথা

আজকের পোস্টটে একদম শেষে চলে এসেছি। আর তেমন কিছু বলার নাই। আশা করছি টিপস গুলো ব্যাবহারে আপনার লাইফ আরেকটু সহজ হবে। আপনার আরো কোন গোপন ফিচার জানা থাকলে অবশ্যই আমাদের সাথে তা কমেন্টে শেয়ার করুন। আর হাঁ, পোস্টটি শেয়ার করতে একদম ভুলবেন না।

label, , , ,

About the author

প্রযুক্তির জটিল টার্মগুলো কি আপনাকে বিভ্রান্ত করছে? কিছুতেই কি আপনার মস্তিষ্কে পাল্লা পড়ছে না? তাহলে বন্ধু, আপনি এবার সঠিক জায়গায় এসেছেন—কেনোনা এখানে আমি প্রযুক্তির সকল জটিল বিষয় গুলো ভাঙ্গিয়ে সহজ পানির মতো উপস্থাপন করার চেষ্টা করি, যাতে সকলে সহজেই সকল টেক টার্ম গুলো বুঝতে পারে।

17 Comments

  1. শিশির June 27, 2016 Reply
  2. মিনহাজ June 27, 2016 Reply
  3. প্রান্ত কুমার June 27, 2016 Reply
  4. Firos June 27, 2016 Reply
  5. Anirban Dutta June 27, 2016 Reply
  6. Roni Ronit June 28, 2016 Reply
  7. Eftikhar Tonmoy June 28, 2016 Reply
  8. Kishor July 14, 2016 Reply
  9. রিয়াজ July 22, 2016 Reply
  10. byzid January 3, 2017 Reply

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *